দ্রুত বীর্যপাতের সমস্যা ও চিকিৎসা সম্পর্কে জানুন

প্রি-ম্যাচিউর ইজাকুলেশন বা যৌন সক্রিয় হওয়ার আগেই বীর্যপাত ঘটা নামে আমরা জানি। অনেকেই মনে করেন আমার দ্রুত বীর্যপাত হয়ে যাচ্ছে। অনেকের মধ্যে দেখা যায়, আমি কাঙ্খিত সময় পর্যন্ত সেক্স ধরে রাখতে পারছিনা,আমার ওয়াইফ কে আমি স্যাটিস্ফাইড করতে পারছিনা এরকম সমস্যায় অনেকেই পড়ে থাকেন। এরকম সময়ে আমি কি করবো? এই বুঝি আমার জীবন শেষ হয়ে গেল! আসলে কখন আপনি এটাকে ডিজিজ হিসেবে নিবেন যখন আসলে দেশ হিসেবে নিকনেমস কতটা সময় পর্যন্ত আপনি ধরে রাখতে পারছেন সেটা একটা এ ব্যাপারে আপনি নিশ্চিত হবেন যে কতটা সময় সেক্স ধরে রাখতে রাখতে পারছেন সেটা একটা কারণ। আপনার কি ধরনের প্রবলেম টা চলছে সেটা কি আসলে সঠিকভাবে বুঝতে হবে। তাহলে আপনি বুঝতে পারবেন এটা আপনার শারীরিক সমস্যা কিনা।

দ্রুত বীর্যপাতের সমস্যা ও চিকিৎসা সম্পর্কে জানুন

সাধারণত ডক্টররা বলে থাকেন, আপনি আপনার স্ত্রীর যৌনাঙ্গে আপনার যৌনাঙ্গ প্রবেশের এক মিনিটের পূর্বেই যদি আপনার বীর্যপাত হয়ে যায় সেটাকে প্রি-ম্যাচিউর ইজাকুলেশন বা দ্রুত বীর্যপাত বলে থাকি। আপনি আপনার স্ত্রীর সাথে সহবাসের পূর্বে আপনার যৌনাঙ্গ ইন্ট্রোডিউস করার পূর্বে যদি আপনার বীর্যপাত হয়ে যায় তারমানে আপনার ওয়াইফ এর কাছে গেলেই যদি আপনার বীর্যপাত হয়ে যায় সেক্ষেত্রে এটাকে আমরা বলব প্রি-ম্যাচিউর ইজাকুলেশন বা দ্রুত বীর্যপাতের মত সমস্যার। এ ধরনের সমস্যা গুলো যদি আপনার ছয় মাস বা ছয় মাসের অধিক সময় ধরে চলতে থাকে তাহলে এটাকে প্রি-ম্যাচিউর ইজাকুলেশন বলা যাবে। অনেকেই আছেন যারা আপনারা একটা লম্বা সময় পর পর দেখা যায় যে ইন্টারকোর্সের জন্য মিলিত হচ্ছেন সেক্ষেত্রে কিন্তু প্রথমবার যখন আপনি মিলিত হচ্ছেন সেক্ষেত্রে আপনার দ্রুত বীর্যপাত হতেই পারে। অনেকেই আছেন যারা হয়তো বা স্ত্রী থেকে কিছুটা দূরে থাকেন কাজের খাতিরে বা অন্য কোন কারণে। সেক্ষেত্রে দুই সপ্তাহ বা এক মাস পর পর আপনি আপনার সঙ্গিনীর সাথে মিলিত হচ্ছেন সে ক্ষেত্রে দেখা যেতে পারে যে আপনি যখনই আপনার সঙ্গীর কাছে যাবেন সেক্ষেত্রে কিন্তু প্রথমবার বা দ্বিতীয় বার পর্যন্ত আপনার দ্রুত বীর্যপাতের মত সমস্যারও হতে পারে।

এমন হতে পারে যে, আপনার মনের ভিতর অনেক এক্সাইটমেন্ট তৈরি হচ্ছে সেক্ষেত্রে কিন্তু আপনি আপনার সঙ্গিনীর সাথে মিলিত হবেন। এটা নিয়ে আপনি বিভিন্ন ধরনের কল্পনা করছেন বা বিভিন্ন ধরনের এক্সাইটমেন্ট ফিল করছেন। এক্ষেত্রে কিন্তু আপনার সঙ্গিনীর সাথে মিলিত হবেন তখনই দেখা গেল যে, আপনি নিজেকে স্যাটিস্ফাইড করার আগে অথবা আপনার ওয়াইফের স্যাটিস্ফাইড করার আগে আপনার বীর্যপাত হয়ে যাচ্ছে। এই জিনিসগুলো কিন্তু অনেক ক্ষেত্রেই হচ্ছে। এটা কতটা সময় ধরে আপনার চলছে? এই ধরনের দ্রুত বীর্যপাতের সমস্যা যদি আপনার ছয় মাসের অধিক সময় ধরে চলতে থাকে তাহলে এটাকে আমরা প্রবলেম হিসেবে ধরে নিব। এছাড়া অনেকগুলো কারণ আছেদ্রুত বীর্যপাত হওয়ার। প্রথমে একটা কথা বলেছিলাম যে এক্সাইটমেন্ট প্ল্যানিং এই জিনিসগুলো কিন্তু একটা কারণ হতে পারে। এছাড়াও আপনার শরীরের লম্বা সময় ধরে কোন ধরনের ডিজিজ থাকে সেক্ষেত্রেও কিন্তু এ ধরনের সমস্যা হতে পারে। আপনার কিডনি রোগের সমস্যা, লিভারের সমস্যা, হার্টের সমস্যা কিংবা আপনার হাইপারটেনশন বা ডায়াবেটিস এর মত লম্বা সময় ধরে থেকে থাকে তাহলে কিন্তু এ ধরনের সমস্যার সম্মুখীন হতে পারেন। এছাড়াও আপনি কি ধরনের মেডিসিন নিচ্ছেন সেক্ষেত্রে কিন্তু এ ধরনের প্রবলেম ফেস করতে পারেন। যদি আপনার সেক্সুয়াল অ্যাসাউল্ট এর কোন ধরনের হিস্ট্রি থাকে অথবা অপ্রাপ্ত বয়সে যদি কেউ সেক্সুয়াল ইন্টারকোর্স শুরু করে থাকেন এগুলো কিন্তু অনেক বড় কারণ হিসেবে আমরা ধরে নিচ্ছি।

এছাড়াও দেখা যায় যে, যৌনাঙ্গে যদি কোন ধরনের ইনফেকশন বা ইনফেকশন থেকে থাকে ভিন্ন ধরনের ভাইরাস ব্যাকটেরিয়া থাকে সেক্ষেত্রে কিন্তু দ্রুত বীর্যপাত হতে পারে। কারণ আপনি যখন ইন্টারকোর্সের মিলিত হবেন তখন ব্যথা অনুভূত হওয়ার কারণে এ ধরনের প্রবলেমগুলো হয়। যে কারণেই হোক না কেন আসলে ট্রিটমেন্ট আসলে ইম্পর্টেন্ট। যুগ ধরে কিন্তু এই ধরনের প্রবলেম গুলো ট্রিটমেন্ট চলে আসছে। আমি আজকে কথা বলব আপনাদের সাথে অ্যাডভান্স রিক্রুটমেন্ট গুলো আছে সেগুলো নিয়ে।  এরকম সমস্যা হলে অবশ্যই ভালো ডাক্তারের পরামর্শ নিবেন এবং ইনভেস্টিগেশনস করে দেখে নিবেন। এছাড়াও আপনার যদি হরমোনাল ইমব্যালেন্স আছে কিনা এ বিষয়ে অবশ্যই দেখে নিবেন। আপনার সমস্যা ধরা পড়লে ডাক্তার আপনাকে হয়তো বা কিছুটা ফুড সাপ্লিমেন্ট দিতে পারে। এছাড়াও ডাক্তার আপনাকে যদি মনে করে থাকে  তাহলে পিআরপি থেরাপি দিতে পারে।  এটা দেওয়ার আগে অবশ্যইআপনার ব্লাড সম্পর্কে জেনে নিবে। তা থেকে রেড ব্লাড এবং হোয়াইট ব্লাড আলাদা করে নিবে। তারা মূলত হোয়াইট ব্লাড টা কে নিয়ে পর্যবেক্ষণ করবেন। তার মধ্যে থেকে প্লেটলেট গুলি যাচাই-বাছাই করে আপনার পেনিস এর ভেতরে মেডিসিন দিতে পারে। সেক্ষেত্রে আপনার যৌনাঙ্গ অবশ্যই স্ট্রং হবে এবং ইজাকুলেশনের প্রবলেমটা সলভ করবে। তাছাড়া প্রয়োজন অনুযায়ী শক ওয়েভ থেরাপি দিতে পারে। এছাড়াও ডাক্তার আপনাকে কিছু ম্যানুয়াল থেরাপি বিষয় শিখিয়ে দেবেন।


শেয়ার করুন