কিভাবে ইউটিউব সেটআপ এবং গুগল এডসেন্স পাবেন

কিভাবে ইউটিউব একাউন্ট খুলতে হয়?

খুব সহজে ইউটিউব একাউন্ট তৈরি করা যায়।  এর জন্য অবশ্যই আপনাকে জিমেইল একাউন্ট থাকতে হবে। বর্তমানে সকলেই মোবাইল ফোন ব্যবহার করছে তবে অনেকেই মোবাইল ফোন থেকে জিমেইল অ্যাকাউন্ট খুলতে পারে না।  তাদেরকে বলব আপনারাই নিয়ম অনুসরণ করুন দেখবেন খুব সহজেই জিমেইল অ্যাকাউন্ট খোলা হয়ে যাবে। 

কিভাবে জিমেইল খুলতে হয়?

জিমেইল একাউন্ট খোলার জন্য অবশ্যই আপনাকে যেতে হবে Gmail.Com ওয়েবসাইটে। সেখান থেকে ক্রিয়েট একাউন্ট এ ক্লিক করুন > ফর মাই  সেলে ক্লিক করুন > সেখান থেকে অ্যাকাউন্ট তৈরি করে ফেলুন। এরপর আপনার  ফার্স্ট নেম এবং লাস্ট নেম দিয়ে ফেলুন> ইউজারনেমসিলেক্ট করুন> এরপর পাসওয়ার্ড সিলেক্ট করেনেক্সট বাটনে ক্লিক করে ফেলুন।  এরপর মোবাইল ভেরিফিকেশন করুন।  আপনার একটি অ্যাকাউন্ট হয়ে গেল। 

কিভাবে ইউটিউব সেটআপ এবং গুগল এডসেন্স পাবেন

ইউটিউব একাউন্ট খুলুন?

ইউটিউব একাউন্ট খোলা খুব সহজ।  শুধুমাত্র জিমেইল দিয়ে আপনি ইউটিউব একাউন্ট খুলতে পারেন। এ্যাকাউন্ট খুলতে হলে বেল বাটন আইকন এর পাশে বৃত্তকার আইকন দেখতে পাবেন।  সেখানে ক্লিক করে ইওর চ্যানেল সিলেক্ট করুন।  ইওর চ্যানেল এ ক্লিক করার পর আপনি সেখানে চ্যানেলটির নাম চয়ন করুন। তারপর চ্যানেল একটি প্রোফাইল পিকচার যুক্ত করে নিন এবং কভার ফটো যুক্ত করুন। প্রেসক্রিপশনঅপশনে গিয়ে আপনার বিবরণ দিয়ে দিন।তারপর ভিডিও সাইটের লিংক গুলো যুক্ত করে দিন। ট্যাগ এবং অন্যান্য ইনফরমেশন গুলো সঠিকভাবে প্রদান করুন। ইউটিউব চ্যানেল খোলার আগে অবশ্যই সুন্দর একটা নাম সিলেক্ট করা দরকার তারপর সেটি  কাস্টমাইজেশন করে নিবেন। 

ইউটিউব থেকে কিভাবে আয় করবেন?

আপনার ইউটিউব চ্যানেলের ভিডিও যুক্ত করুন।  বেশ কিছু ভিডিও যুক্ত করার পর ওয়াচ টাইম 4000 ঘন্টা এবং 1000 সাবস্ক্রাইব করে ফেলুন। চ্যানেলে সাবস্ক্রাইবার সংখ্যা সর্বনিম্ন ১০০০  হতে হবে।বেশি হলে আরও ভালো। মনিটাইজ এনেবেল হলে ইউটিউব এর ভেতরে গিয়ে দেখতে পারবেন আপনার চ্যানেলটি মনিটাইজ হয়েছে কিনা। যদি মনিটাইজেশন এনেবেল হয়ে থাকে তাহলে আপনি অবশ্যই এডসেন্স এর জন্য আবেদন করতে পারেন।  আবেদন করার জন্য অবশ্যই কান্ট্রি সিলেক্ট করতে হবে।  আগে দেখে নিবেন আপনার কাছে তিনি নোবেল আছে কিনা।  বাংলাদেশ থেকে এডসেন্স বর্তমানে এনেবেল করা রয়েছে।  অ্যাডসেন্সে সাইন আপের জন্য Google AdSense এই লিঙ্কে প্রবেশ করুন। এখানে গিয়ে আপনার নাম ঠিকানা কান্ট্রি সিলেক্ট করে দিন। ট্রাম এন্ড কন্ডিশন কুলিয়ে ভালোভাবে পড়ে জেনে নিন কিভাবে এডসেন্স পেতে পারেন এবং এডসেন্স সুরক্ষিত রাখতে পারেন। এরপর সাইটে গিয়ে আপনার ওয়েবসাইটটি অ্যাড করে দিন।ওয়েবসাইট করে দেওয়ার পর সেখান থেকে কোড বের করে ওয়েবসাইটে যুক্ত করে দিন। এরপর আপনার ওয়েবসাইটটি তিন থেকে সাত দিনের রিভিউ নিবে গুগোল। আপনার ওয়েবসাইট কথা বা ইউটিউব যদি  ভায়োলেশন না করে থাকে তাহলে অবশ্যই পেয়ে যাবেন।

বর্তমানে বাংলাদেশের টেকনোলজি নিয়ে অনেকে  কাজ করে যাচ্ছে।  এছাড়াও মাল্টিমিডিয়া নিয়ে অনেকে কাজ করে যাচ্ছে। ফানি ভিডিও নিয়ে অনেকেই ইউটিউবে কাজ করে যাচ্ছে। কেউ আবার শিক্ষামূলক ভিডিও নিয়ে কাজ করছে। আর পছন্দ অনুযায়ী এটি একটি কাজ করতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করে সেটি নিয়ে অবশ্যই কন্টেন্ট তৈরি করা জরুরি। ইউটিউব এমন কোন ভিডিও নেই যে পাওয়া যায় না তবে এর মধ্য থেকে যেকোনো একটি ক্যাটাগরি সিলেক্ট করে কাজ করুন। একটি চ্যানেলপারফেক্ট করে গড়ে তুলতে অনেক সময় সাপেক্ষ ব্যাপার রয়েছে তবে কপাল ভালো থাকলে অবশ্যই রাখবো তাড়াতাড়ি এগোতে পারবেন। তবে নিজের চেষ্টাতেই সাফল্যের পর্যায়ে নিয়ে যাবে। 


শেয়ার করুন